মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২, বিকাশ পার্সোনাল একাউন্ট খোলার নিয়ম, ঘরে বসে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম।

মোবাইলে নতুন বিকাশ একাউন্ট খোলা একদম সিম্পল
নতুন নিয়মে বিকাশ একাউন্ট খুলোন সহজে

মোবাইলে নতুন বিকাশ একাউন্ট খোলা একদম সিম্পল ! বর্তমানে সকল সিম অপারেটর এয়ারটেল, বাংলালিংক, টেলিটক, গ্রামীণফোন এবং রবি গ্রাহকগণ বিকাশ একাউন্ট খুলতে পারবেন নিজের মোবাইল ফোন দিয়ে নতুন বিকাশ একাউন্ট খোলা যাবে। মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম নিচে ছবিসহ সকল ধাপগুলি দেওয়া হয়েছে।

নতুন বিকাশ পার্সোনাল একাউন্ট খোলার নিয়ম গুলো হলোঃ প্রথম আপনার মোবাইলে যদি বিকাশ অ্যাপ না থাকে তাহলে "Play store" থেকে বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড করে অ্যাপ থেকেই ঘরে বসে মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট খুলতে পারবেন নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করে। 

ঘরে বসে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২

ঘরে বসে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম গুলো নিচে ছবিসহ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের বদৌলতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করছে বিকাশ, নগদ এর মতো অ্যাপগুলো। বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম অত্যন্ত সহজ। একজন গ্রাহক বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে নতুন বিকাশ একাউন্ট খুলতে পারবেন। এছাড়াও বিকাশের ওয়েবসাইট থেকেও ঘরে বসেই বিকাশ একাউন্ট খোলা যায়৷ এছাড়াও বিকাশ এজেন্ট কিংবা কাস্টমার কেয়ারে গিয়েও বিকাশ একাউন্ট খোলা যায়।

বিকাশ কি?

বিকাশ হলো ব্র্যাক ব্যাংক, যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক মানি ইন মোশন, বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের অর্ন্তগত ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশন, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল এর যৌথ মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান। ২০১১ সাল থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়ন্ত্রিত পেমেন্ট সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিভিন্ন ধরনের মোবাইল/ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস দিয়ে আসছে বিকাশ।

বিকাশ একাউন্ট খোলার সুবিধা

বর্তমানে একটি বিকাশ একাউন্ট থাকার রয়েছে নানাবিধ সুবিধা। ঘরে বসেই বিকাশ একাউন্ট খুলে উপভোগ করা যাবে বিকাশ এর সকল সুবিধা। বিকাশ একাউন্ট খোলার সুবিধা হলোঃ

  • টাকা পাঠানোঃ- অবশ্যই বিকাশ ব্যবহার করে টাকা আদান-প্রদান করা যায়। বিকাশ ব্যবহার করা যায় মোবাইল ফোন দিয়ে তাই যেকোনো সময় যেকোনো স্থান থেকেই দেশের অন্য প্রান্তে খুব সহজে টাকা পাঠানো যায় বিকাশ ব্যবহার করে।
  • টাকা উত্তোলনঃ- বিকাশ একাউন্টে থাকা টাকা যেকোনো সময় এজেন্ট এর কাছ থেকে ক্যাশ আউট করা যায়। এছাড়াও ব্র‍্যাক ব্যাংক এটিএম থেকেও বিকাশ এ টাকা তোলা যায়।
  • টাকা জমা করাঃ- বিকাশ একটি ডিজিটাল ওয়ালেট হিসেবে কাজ করে। ব্যাংকবিহীন ক্যাশ সিস্টেম হওয়ায় বিকাশে টাকা জমা করার প্রসেসটি অত্যন্ত সহজ
  • মোবাইল রিচার্জঃ- যে কোন সময় যে কোন স্থান থেকে বিকাশ একাউন্ট থেকে খুহ সহজেই মোবাইলে রিচার্জ করা যায়। মোবাইল রিচার্জের ক্ষেত্রে কোনো ফি প্রযোজ্য নয়। অর্থাৎ বাড়তি কোনো ফি ছাড়াই বিকাশ হতে মোবাইল রিচার্জ করা যায়।
  • কেনাকাটাঃ- মোবাইল দিয়ে বিভিন্ন পণ্য কেনাকাটা ও সেবার মূল্য খুব সহজেই বিকাশে পরিশোধ করা যায়। এছাড়াও ইন্টারনেট হতে যেকোনো কেনাকাটার ক্ষেত্রে বিকাশে পে করা যায়।
  • অন্যান্যঃ- ঘরে বসে মোবাইলে বিকাশ ব্যবহার করে বিদেশ থেকে রেমিট্যান্স গ্রহণ, বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ, যানবাহনের টিকেট কেনার মতো আরো অনেক সুবিধা উপভোগ করা যায়।
  • বিকাশ অফারঃ- বিকাশ এ সবসময় বিভিন্ন অফার, বোনাস ও ক্যাশব্যাক ক্যাম্পেইন চলতেই থাকতে।

মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২

বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য যে সকল কাগজ লাকে তা হলো, যার নামে বিকাশ একাউন্ট খোলবেন তার NID card এর মূল কপি এবং যার নামে একাউন্ট খোলা হবে তিনাকে থাকা লাগবে কারণ তার ছবি তোলতে হবে।

আরো পড়ুনঃ

মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট খোলার ধাপগুলোঃ

মোবাইল দিয়ে বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য প্রথম আপনার মোবাইল বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে (যদি না থাকে)।

ধাপঃ ১ একাউন্ট রেজিষ্ট্রেশন

বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য বিকাশ অ্যাপ "Open" করার পরে "Login/ Registration বা লগইন / রেজিষ্ট্রেশন " বাটনে ক্লিক করুণ।

একাউন্ট রেজিষ্ট্রেশন
একাউন্ট লগইন / রেজিষ্ট্রেশন

ধাপঃ ২ মোবাইলে নাম্বার

রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য মোবাইলে নাম্বারটি দিয়ে "পরবর্তী ধাপ" ক্লিক করুন। 

মোবাইল নাম্বার টাইপ
মোবাইল নাম্বার টাইপ

ধাপঃ ৩ মোবাইল অপারেটর সিলেক্ট করুণ

আপনার প্রদানকৃত মোবাইল নাম্বারটি কোন অপারেটর তা বেছে Select করতে হবে। আপনার মোবাইল নাম্বারটি যদি রবি হয় তাহলে রবি Select করতে হবে। আর যদি গ্রামীনফোন হয় তাহলে গ্রামীনফোন Select করতে এই ভাবে Select করে। 

মোবাইল অপারেটর সিলেক্ট করুণ
মোবাইল অপারেটর সিলেক্ট করুণ

ধাপঃ ৪ মোবাইল নাম্বার ভেরিফাই

আপনি যে মোবাইল নাম্বার প্রদান করেছেন সেই নাম্বারে এসএসএম এ একটি ভেরিফাই কোড দেওয়া হয়েছে তা এখানে দিয়ে "Confirm/ কনর্ফম" ক্লিক করুণ। 
মোবাইল নাম্বার ভেরিফাই
মোবাইল নাম্বার ভেরিফাই

ধাপঃ ৫ বিকাশ নিয়ম ও শর্তসমূহ

বিকাশের দেওয়া নিয়ম ও শর্তসমূহ সঠিক ভাবে পড়ার পরে "আমার সম্মতি আছে" বাটনে ট্যাপ করুণ।

বিকাশ নিয়ম ও শর্তসমূহ
বিকাশ নিয়ম ও শর্তসমূহ

ধাপঃ ৬ NID ছবি তুলুন (অবশ্য মূল কপির ছবি)

এখানে আপনাকে ধাপ গুলে দেখাবে।  প্রথমে আপনাকে NID কার্ডের ছবি তুলোতে বলা হবে নিচে ছবির মত। এর পর "NID ছবি তুলুন" এ বাটনে ট্যাপ করুণ।

NID কার্ড ছবি তুলুন
NID ছবি তুলুন

ধাপঃ ৭ NID সামনের দিক ছবি তুলুন

জাতীয় পরিচয় পত্রের সামনের দিক ছবি তুলতে হবে। জাতীয় পরিচয়পত্রের সামনের অংশটি ফ্রেমের মধ্যে রেখে ছবি তুলুন।

NID সামনের দিক ছবি তুলুন
NID সামনের দিক ছবি তুলুন

ধাপঃ ৮ ছবি স্পষ্ট হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করুণ

জাতীয় পরিচয়পত্রের ছবি তোলার পরে তা স্পষ্ট হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করুণ। যদি ভালো না হয় তাহলে "আবার তুলুন" বাটনে ট্যাপ করে আবার নতুন করে ছবি তুলুন।  এবং ছবি তুলুলা হলে "সাবমিট করুণ" বাটনে ট্যাপ করুণ

ছবি স্পষ্ট হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করুণ
ছবি স্পষ্ট হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করুণ

ধাপঃ ৯ NID পিছনের দিক ছবি তুলুন

উপরের ধাপঃ ৭ ও ধাপঃ ৮ এই দুটি ধাপ যে ভাবে সম্পূর্ণ করেছেন ঠিক সেই ভাবে জাতীয় পরিচয়পত্রের পিছনের দিক ছবি তুলুন এবং সাবমিট করুণ। নিচে ছবি দেওয়া হলো।

NID পিছনের দিক ছবি তুলুন
NID পিছনের দিক ছবি তুলুন

ধাপঃ ১০ NID এর তথ্য যাচাই

আপনার প্রদানকৃত জাতীয় পরিচয়পত্রের সাথে বিকাশ থেকে দেওয়া তথ্য সঠিক আছে কিনা তা যাচাই করুণ। যদি তথ্য কিছু ভুল থাকে তাহলে তা এখান থেক ঠিক করে নিবে। এবপরে "পরবর্তী" বাটনে ট্যাপ করতে হবে।

NID এর তথ্য যাচাই
NID এর তথ্য যাচাই

ধাপঃ ১১ আরো তথ্য প্রদান করুণ

আপনার আরো কিছু তথ্য প্রদান করতে হবে। যেমন, 
  • লিঙ্গ নির্বাচন করুণ,
  • আয়ের উৎস নির্বাচন করুণ,
  • আনুমানিক মাসিক আয় নির্বাচন করুণ,
  • পেশা নির্বাচন করুণ
সকল তথ্য প্রদান করার পরে তা সঠিক আছে কিনা তা নিশ্চিত করে "পরবর্তী" বাটনে ট্যাপ করুণ।

আরো তথ্য প্রদান করুণ
আরো তথ্য প্রদান করুণ

ধাপঃ ১২ নিজের চেহারার ছবি তুলুন

আপনি যদি নিজের জাতীয় পরিচয়পত্র দিয় একাউন্ট খুলেন তাহলে আপনার ছবি তুলুন আর যদি আপনি অনের NID দিয়ে বিকাশ একাউন্ট খুলেন তাহলে তার ছবি তুলুন।
অব্যশ প্রয়োজ, 
  • ছবি তোলার সমস্যা চারপাশে পর্যাপ্ত আলো থাকতে হবে।
  • ফ্রেমের ভিতরে আপনার চেহেরা থাকতে হবে।
  • স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্ক্যানিং এর জন্য কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুণ।
আপনার ছবি তুলার জন্য "ছবি তুলুন" বাটনে ট্যাপ করুণ। এরপর আপনার ছবি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ছবি তুলা হলে অটোমেটিক আপনাকে অন্য ধাপ নিয়ে যাবে ধাপঃ ১২ দেখুন।

নিজের চেহারার ছবি তুলুন
নিজের চেহারার ছবি তুলুন

ধাপঃ ১৩ তথ্য সাবমিট

আপনার প্রদান করা তথ্য যদি সঠিক থাকে তাহলে  বিকাশ একাউন্ট রেজিষ্ট্রেশন করা জন্য "নিশ্চিত করুণ" বাটনে ট্যাপ করুণ।
বিঃদ্রঃ সকল তথ্য সাবমিট করা পরে বিকাশ আপনা তথ্য ভেরিফাই করার জন্য ৪৮ ঘণ্টা সময় নিবে তার পরে সম্পূর্ণ ভাবে একাউন্ট চালু হবে। 
বিকাশে তথ্য সাবমিট
বিকাশে তথ্য সাবমিট

ধাপঃ ১৪ কনফার্মেশন SMS

আপনার দেওয়া সকল তথ্য ঠিক থাকলে বিকাশ থেকে আপনারে বিকাশ পিন সেট করা জন্য আপনাকে কনফার্মেশন একটি এসএমএস প্রদান করা হবে বিকাশ থেকে। এর জন্য কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে। এসএমএস পেলে লগইন করুণ।

কনফার্মেশন SMS
কনফার্মেশন SMS

ধাপঃ ১৫ একাউন্ট লগইন

বিকাশ একাউন্ট লগইন করা জন্য "লগইন/রেজিষ্ট্রেশন" বাটনে ট্যাপ করুণ।

বিঃদ্রঃ ধাপঃ ২, ধাপঃ ৩, ধাপঃ ৪ যে ভাবে সম্পূর্ণ করা হয়েছে ঠিক সেই ভাবে এখন করতে হবে তার পরে নিচে ধাপঃ ১৫ দেও ছবির মত আসবে।

বিকাশ একাউন্ট লগইন
একাউন্ট লগইন

ধাপঃ ১৬ বিকাশ নতুন পিন সেট করুণ

আপনার বিকাশ মোবাইল নাম্বারটি ভেরিফাই হয়ে গেলে আপনার বিকাশ নতুন পিন সেট করা জন্য একটি বক্স আনবে সেখানে পিন দিতে হবে। 
নতুন পিন সেট করার জন্য কিছু নিদর্শনঃ
  • যা কোন ধারাবাহিক সংখ্যার সিরিজ নয়, যেমনঃ 12345
  • যা একই সংখ্যার সিরিজ নয়, যেমনঃ 11111, 22223, 33333
  • যা 0 শূণ্য দিয়ে শুরু হওয়া কোনো সংখ্যা নয়।
৫ ডিজিটের পিন দুইবার দেওয়া হলে তারপরে " কনর্ফম" বাটনে ট্যাপ করুণ। যদি কোন কারণে কনর্ফম না হয় তাহলে আবার পিন দিয় চেষ্টা করুণ।

বিকাশ নতুন পিন সেট করুণ
বিকাশ নতুন পিন সেট করুণ

ধাপঃ ১৭ একাউন্ট লগইন করুণ

পিন সেট করা সম্পূর্ণ হলে আপনাকে একটি এসএমএস দিবেন বিকাশ থেকে। এর পরে অটোমেটিক আপনার মোবাইলে নাম্বারসহ পিন দেওয়ার এবং লগইন করা জন্য একটি পেজ আসবে। আপনি যে পিন দিয়েছে সেই পিনটি দিয়ে "পরবর্তী" বাটনে ট্যাপ করুণ।
একাউন্ট লগইন করুণ
একাউন্ট লগইন করুণ

ধাপঃ ১৮ নাম সেট করুণ

বিকাশ একাউন্ট মোবাইল নাম্বার ও পিন দিয়ে লগইন করার পরে আপনার নাম সেট করুণ এই ধাপটি আসে। সেখানে অটোমেটিক নাম নিয়ে নিবে।  যদি না নেই বা পরিবর্তন করতে চান তাহলে সেখকনে নামের প্রথম অংশ এবং নামের শেষে অংশ দিয়ে "পরবর্তী" বাটনে ট্যাপ করুণ।
নাম সেট করুণ
নাম সেট করুণ

ধাপঃ ১৯ প্রোফাইল ছবি সংযুক্ত করুন

প্রোফাইলে ছবি সংযুক্ত করার জন্য (+) চিহ্নতে ট্যাপ করে আপনার পছন্দের ছবি সিলেক্ট করুন। এরপরে ছবি সকল কে দেখাতে চাইলে নিচে "বক্স টিক" দিতে হবে। তারপরে "শুরু করুণ" বাটনে ট্যাপ করুণ।
প্রোফাইল ছবি সংযুক্ত করুন
প্রোফাইল ছবি সংযুক্ত করুন

ধাপঃ ২০ বিকাশ একাউন্ট সক্রিয়/চালু

আপনার বিকাশ একাউন্ট সক্রিয়/চালু হয়েছে। আপনার প্রয়োজনী লেনদেন শুরু করণ এখন থেকে। আর বিকাশ অফার সবার আগে জান বা পেতে আপনাদের ফেসবুক পেজ

বিকাশ একাউন্ট সক্রিয়/চালু
বিকাশ একাউন্ট সক্রিয়/চালু

গ্রাহক সেবায় বিকাশ একাউন্ট খুলুনঃ

১। মোবাইল ফোন
২। জাতীয় পরিচয়পত্র (ফটোকপি) / ড্রাইভিং লাইসেন্স (মূল এবং ফটোকপি) / পাসপোর্ট (মূল এবং ফটোকপি)
৩। ১ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি

গ্রাহক সেবা কেন্দ্রে বিকাশ একাউন্ট খুলুনঃ

নিকটবর্তী গ্রাহক সেবা কেন্দ্রে বিকাশ একাউন্ট খুলতে নিয়ে আসুন

১। মোবাইল ফোন
২। জাতীয় পরিচয়পত্র (মূল এবং ফটোকপি)/ মূল ড্রাইভিং লাইসেন্স / মূল পাসপোর্ট
৩। ১ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি

একাউন্ট ওপেনিং ফরমটি পূরণ করুন এবং আপনার বৃদ্ধাঙ্গুলির ছাপ ও স্বাক্ষর দিন। 

বিকাশ একাউন্ট খোলার পর আপনাকে আপনার বিকাশ মোবাইল মেন্যুটি এক্টিভেট করে নিতে হবে। আপনার মোবাইল মেন্যু এক্টিভেট করতে নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করুনঃ
  • *২৪৭# ডায়াল করে বিকাশ মোবাইল মেন্যুতে যান।
  • “ এক্টিভেট মোবাইল মেন্যু” বেছে নিন।
  • বিকাশ একাউন্টের জন্য ৫ ডিজিটের পিন নম্বরটি প্রবেশ করান
  • কনফার্ম করার জন্য আপনার পিন নম্বরটি আবার প্রবেশ করান  

* আপনার পিন নম্বরটি সব সময় গোপন রাখুন


সকল প্রক্রিয়া সঠিক ভাবে সম্পন্ন হবার পর আপনার মোবাইল নম্বরটি একটি বিকাশ একাউন্ট নম্বর হিসেবে গণ্য হবে। আপনার বিকাশ একাউন্ট এর মাধ্যমে প্রাথমিক ভাবে মোবাইল রিচার্জ, ক্যাশ ইন এবং টাকা গ্রহণ সেবা ব্যবহার করতে পারবেন। তবে, আপনার KYC ফরম এর তথ্য যাচাই হয়ে গেলে, ৩-৫ দিনের মধ্যে আপনি “ক্যাশ আউট”, “ মোবাইল রিচার্জ “, “পেমেন্ট” এবং বিকাশ এর  অন্যান্য সেবা সমূহ উপভোগ করতে পারবেন। আপনার একাউন্টটি সম্পূর্ণভাবে সক্রিয় হওয়ার পর *247# ডায়াল করে দিন রাত ২৪ ঘণ্টা, সপ্তাহে ৭ দিন বিকাশের সেবা ব্যবহার করতে পারবেন। একজন গ্রাহক গ্রাহক সেবা কেন্দ্র অথবা গ্রাহক সেবা থেকে একাউন্ট খুললে সাথে সাথে বিকাশ এর সকল সেবা উপভোগ করতে পারবেন।

বিকাশ একাউন্ট USSD কোড?

আমাদের সকলের কাছে ট্যাচফোন নাই। এবং আমাদের ফোনে MB না থেকে তাহলে কি আমরা বিকাশে লেনদেন করতে পারবো না? এই প্রশ্ন বলেন বিকাশ MB ছাড়া ব্যবহার করা যাবে USSD Code  এর মাধ্যমে।  বিকাশ একাউন্ট এর USSD Code হচ্ছে *247# আপনার মোবাইলের কল মেনুতে গিয়ে *247# কল করে আপনার বিকাশ একাউন্ট এর সকল লেনদেন করতে পাবেন বাটন ফোন দিয়ে।



Next Post Previous Post
মন্তব্যগুলো দেখান
মন্তব্যগুলো যোগ করুণ

আপনার মূল মান মতামতটি আমাদের জানান। আমি শালীন ভাষা ব্যাবহার করবো এবং অশ্লীল ভাষা ব্যাবহার থেকে বিরত থাকবো। কৌণিক বার্তা.কম আপনার আইপি অ্যাড্রেস ব্লকের ক্ষমতা রাখে।

comment url