নাম মানুষকে বড় করে না , মানুষই নামকে বড় করে তোলে এই ভাবসম্প্রসারণ পিডিএফ ডাউনলোড করতে পারবেন।


ভাবসম্প্রসারণ
ভাবসম্প্রসারণ

নাম মানুষকে বড় করে না , মানুষই নামকে বড় করে তোলে। ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম বা ভাবসম্প্রসারণ করার ক্ষেত্রে যেসব দিক বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবেঃ

১। উদ্ধৃত অংশটুুকু মনোযোগসহ পড়তে হবে।

২৷ অন্তর্নিহিত ভাবটি বোঝার চেষ্টা করতে হবে।

৩। অন্তর্নিহিত ভাবটি কোনো উপমা-রূপকের আশ্রয়ে নিহিত আছে কি না, তা চিন্তা করতে হবে।

৪। সহজ-সরলভাবে মূল ভাবকে ফুটিয়ে তুলতে হবে।

৫। মূল বক্তব্যকে প্রকাশরূপ দেওয়ার জন্য প্রয়োজনে যুক্তি উপস্থাপন করতে হবে।

৬। বক্তব্যের পুনরাবৃত্তি যেন না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

নাম মানুষকে বড় করে না , মানুষই নামকে বড় করে তোলে। এই ভাবসম্প্রসারণ লিখার নিয়ম উপর থেকে জেনেছি৷ আমরা শিখতে পারবো নাম মানুষকে বড় করে না , মানুষই নামকে বড় করে তোলে ভাবসম্প্রসারেণ কি ভাবে লিখতে পরবো। ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম, ৯ম, ১০ম শ্রেণী এবং SSC HSC JSC PSC বাংলা ২য় পত্রের ভাবসম্প্রসারণ।

মূলভাব:

নাম মানুষের শনাক্তকরণ বা পরিচয়ের জন্যে অপরিহার্য । কিন্তু নাম বড় জিনিস নয়। কর্মই নামকে মহিমান্বিত করে। নাম দিয়ে কোন মানুষ বড় হতে পারে না। সকল মানুষ তার কর্মে বড় হয়।

সম্প্রসারিত ভাব:

নাম নিয়ে গৌরব করার কিছু নেই। প্রতিটি মানুষ পৃথিবীতে কী করছে তার ওপরই মানুষের মূল্যায়ন করা হয়। এক্ষেত্রে নাম অর্থহীন। মানুষ যদি সমাজের জন্যে মহৎ কিছু করে যেতে পারে তাতেই তার কৃতিত্ব ও গৌরব। তখন তার এ কৃতিত্বের জন্যে তার নামটিও সবার হৃদয়ে স্বর্ণাক্ষরে লেখা হয়ে যায়। বিচিত্র পৃথিবীতে মানুষের বিচিত্র সব নাম। সবাইকেই একদিন এ মায়াময় পৃথিবী থেকে বিদায় নিতে হবে। তখন তার অস্তিত্ব বলে কিছু থাকবে না। মৃত্যুর সাথে সাথে নামটিও বিলীন হয়ে যাবে। শুধু থেকে যাবে তার কর্মফল। সে যদি ভালো কর্মফল রেখে যায় তবেই সে গরীয়ান ও মহিমান্বিত হয়ে উঠবে। এক্ষেত্রে তার নামটি কর্মফলের কারণে চিরঅম্লান হয়ে থাকবে। জগতে যেসব মনীষী চিরস্মরণীয় হয়ে রয়েছেন তাঁদের জীবন বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়— নামে নয় বরং মহৎ কার্যাবলির জন্যেই তাঁরা বিখ্যাত হয়েছেন।  বাবা - মা সন্তানের একটি ভালো নাম রেখে সব সময়ই ইচ্ছা পোষণ করেন যেন তাদের সন্তান তাদের রাখা নামটি সার্থক করে তুলতে পারে। কিন্তু তাদের আশা সব সময়ই পূর্ণতা পায় না। তারা যদি ভালো নাম নাও রাখেন তবুও গুণাবলি দ্বারা মানুষ ঐ নামকেই মর্যাদাশীল করে তুলতে পারে। নাম সে তো আত্মীয় - স্বজন , বন্ধু - বান্ধবের কাছে ব্যক্তিগত পরিচয়ের একটি চিহ্নস্বরূপ। তার সঙ্গে যখন মহান কীর্তিকলাপ যোগ হয় তখনই নাম হয়ে ওঠে ধন্য। শেকপিয়র বলেছেন , “গোলাপকে যে নামেই অভিহিত করা হোক না কেন , তা ঠিক একই রূপ সুগন্ধি ও গুণ বিতরণ করবে।” সুতরাং নামে কী বা আসে যায়। কর্মফলই নামকে ছোট বড় করে থাকে।

মন্তব্য:

মানবজীবনে নামের কোনো ভূমিকা নেই। মানুষ তার কর্মের দ্বারা নামকে বড় করে তোলে। তাই আমাদের নাম নিয়ে বাড়াবাড়ি করা প্রয়োজন নাই। যদি কর্ম করি তাহলে নাম বড় হয়ে যাবে।


বিঃদ্রঃ বাংলাদেশর সকল শিক্ষা বিষয়ের খবর এবং বাংলা ২য় ও ইংরেজি ২য় এবং সকল বিষয়ের তথ্য জানতে চোখ রাখুন  কৌণিক বার্তা ফেসবুক পেজে নিচে লিংক দেওয়া হলোঃ-


ভাবসস্প্রসারণের সম্পূর্ণ তালিকা
আপনি পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন 180 সেকেন্ড পর



Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url