হাতে কাজ করায় অগৌরব নাই, অগৌরব হয় মিথ্যায়, মূর্খতায় - ভাবসম্প্রসারণ

স্বাধীনতা অর্জনের চেয়ে স্বাধীনতা রক্ষা করা কঠিন

কর্মই জীবন। তাই নিজের হাতে নিজের কাজগুলো সম্পাদন করাই শ্রেয়। কিন্তু মূর্খতার কারণে অনেকেই নিজ হাতে কাজ করাকে অগৌরবের মনে করে। নিজের কাজ নিজে করার মধ্যে রয়েছে আত্মতৃপ্তি, গৌরব; মিথ্যায় কিংবা মূর্খতায় কোনো গৌরব নেই।

  হাতে কাজ করায় অগৌরব নাই; অগৌরব হয় মিথ্যায়, মূর্খতায়

ভাবসম্প্রসারণ  হাতে কাজ করায় অগৌরব নাই, অগৌরব হয় মিথ্যায়, মূর্খতায় ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম, ৯ম, ১০ম ১১ ও ১২ শ্রেণীর জন্য কাযকারি । ভাবসম্প্রসারণ তালিকা SSC HSC JSC বাংলা ২য় পত্রের পরিক্ষায় সহজ ভাবে লিখে ভালো নাম্বার পাবেন সেই ভাবে লেখা হয়েছে।

মূলভাব:

কর্মই জীবন। তাই নিজের হাতে নিজের কাজগুলো সম্পাদন করাই শ্রেয়। কিন্তু মূর্খতার কারণে অনেকেই নিজ হাতে কাজ করাকে অগৌরবের মনে করে। এ ধরনের মানসিকতা পরিত্যাজ্য। নিজের কাজ নিজে করার মধ্যে রয়েছে আত্মতৃপ্তি, গৌরব; মিথ্যায় কিংবা মূর্খতায় কোনো গৌরব নেই।

সম্প্রসারিত ভাব:

পরিশ্রমই ব্যক্তি ও সমাজজীবনে সাফল্যের চাবিকাঠি। পরিশ্রম ছাড়া ধন, মান, জ্ঞান, প্রতিপত্তি কোনো কিছুই সত্যিকার অর্থে অর্জন করা যায় না। অবশ্য কিছু মানুষ প্রতারণা, ছলনা ও ধাপ্পাবাজির সাহায্যে সমাজে ধনী, মানী, জ্ঞানী ও প্রতিপত্তিশালী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে। তাই বলা হয় হাতে কাজ করায় অগৌরব নাই, অগৌরব হয় মিথ্যায়, মূর্খতায়। আমরা তাদের যথেষ্ট সমাদরও করে থাকি। কিন্তু এরা সত্যিকার অর্থে মানুষ নয়- এরা সমাজের দুষ্ট কীট। বস্তুত মানুষের প্রকৃত মর্যাদা তার দৈহিক পরিশ্রমে, তার নিজের হাতে কাজ করায়। নিজের কাজ নিজে করে জীবনে উন্নতি লাভ করার চেয়ে এসব মানুষ মিথ্যা আর মূর্খতায় নিজের গৌরব বৃদ্ধি করাতে চায়। মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে অবৈধ ও অন্যায়ভাবে টাকা উপার্জন করে জীবনের শ্রী-বৃদ্ধিটাকে এরা গৌরবজনক মনে করে। মূর্খতা এদের কাছে অভিশাপ মনে হয় না। এতে একদিকে যেমন দেহ থাকে সুঠাম ও সবল, অন্যদিকে মনে থাকে পবিত্রতা ও পরিপূর্ণ তৃপ্তি । ইসলাম ধর্মের শেষ নবী হযরত মুহাম্মদ মোস্তফা (স) অনেক কাজ নিজের হাতেই করতেন। হযরত ফাতিমা (রা) আটা পিষতে গিয়ে হাতে ফোসকা ফেলেছেন। এভাবেই তাঁরা কর্মের মধ্যেই মানুষের প্রকৃত গৌরবকে প্রতিষ্ঠিত করে গেছেন। অন্যদিকে যারা কাজকে ফাঁকি দিয়ে মিথ্যার আশ্রয় নেয়, জ্ঞানার্জনের মাধ্যমে সচেতন হতে চায় না, তাদের জীবনে প্রকৃত অর্থে গৌরব করার কিছুই নেই। মিথ্যাচার ও মূর্খতা সর্বকালেই সকল ধর্মে ও সকল সমাজে ঘৃণিত ও পরিত্যাজ্য। এতে মনুষ্যত্ব হয় লাঞ্ছিত। তাই আমাদের শ্রম-সাধনার মাধ্যমে জীবনকে গড়ে তুলতে হবে। শ্রমবিমুখ মিথ্যা বাহাদুরি নিয়ে জীবনকে আমরা কলুষিত করতে চাই না ।

মন্তব্য: ‍

বাংলাদেশে সৎকর্মের প্রতি শ্রদ্ধার অভাব প্রকট। প্রত্যেক মানুষের কর্মবিমুখ প্রবণতা পরিহার করা উচিত। আমাদের উচিত এই কথা টি মনে রেখে কাজ করতে হবে হাতে কাজ করায় অগৌরব নাই, অগৌরব হয় মিথ্যায়, মূর্খতায়।


বিঃদ্রঃ বাংলাদেশর সকল শিক্ষা বিষয়ের খবর তথ্য জানতে চোখ রাখুন কৌণিক বার্তা ফেসবুক পেজেঃ-


ভাবসস্প্রসারণের সম্পূর্ণ তালিকা
Next Post Previous Post
মন্তব্যগুলো দেখান
মন্তব্যগুলো যোগ করুণ

আপনার মূল মান মতামতটি আমাদের জানান। আমি শালীন ভাষা ব্যাবহার করবো এবং অশ্লীল ভাষা ব্যাবহার থেকে বিরত থাকবো। কৌণিক বার্তা.কম আপনার আইপি অ্যাড্রেস ব্লকের ক্ষমতা রাখে।

comment url