ইচ্ছা থাকলে উপায় হয় ভাবসম্প্রসারণ। ইচ্ছা থাকলে উপায় হয় ভাবসম্প্রসারণ ডাউনলোড। কৌণিক বার্তা

অর্থই অনর্থের মূল ভাবসম্প্রসারণ

সুতরাং যে ভাব বা Idea সংক্ষেপে বা ইঙ্গিতে করা হয়েছে , তাকেই বিস্তৃত করে প্রকাশ করাকে ভাবসম্প্রসারণ বলা হয় ।

ভাব - সম্প্রসারণের ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত নিয়মাবলি অনুসরণযোগ্য :

১ . প্রদত্ত চরণ বা গদ্যাংশটি একাধিকবার মনোযোগসহকারে পড়তে হবে । লক্ষ্য থাকবে প্রচ্ছন্ন বা অন্তর্নিহিত ভাবটি কী , তা সহজে অনুধাবন করা । 

২ . অন্তর্নিহিত মূলভাবটি কোনো উপমা , রূপক - প্রতীকের আড়ালে আছে কিনা তা বিশেষভাবে লক্ষ করতে হবে । মূলভাবটি যদি রূপক প্রতীকের আড়ালে প্রচ্ছন্ন থাকে , তবে ভাব - সম্প্রসারণের সময় প্রয়োজনে অতিরিক্ত অনুচ্ছেদ - যোগে ব্যাখ্যা করলে ভালো হয় । 

৩ . মূলভাবকে বিশদ করার সময় সহায়ক দৃষ্টান্ত , প্রাসঙ্গিক তথ্য বা উদ্ধৃতি ব্যবহার করা সংগত । এমনকি প্রয়োজনে ঐতিহাসিক , পৌরাণিক বা বৈজ্ঞানিক তথ্যও উল্লেখ করা যায় । তবে ভুল বা অপ্রাসঙ্গিক তথ্য , উদ্ধৃতি দেওয়ার চেয়ে না দেওয়াই ভালো । 

৪. সহজ - সরল ভাষায় , সংক্ষেপে ভাবটি উপস্থাপন করা উচিত । প্রয়োজনে যুক্তির দ্বারা তাৎপর্যটি উদ্ধার করতে হবে ।

৫. ভাব - সম্প্রসারণ করার সময় মনে রাখতে হবে , যেন বক্তব্যের পুনরাবৃত্তি না ঘটে । বারবার একই কথা লেখা ভাব - সম্প্রসারণের ক্ষেত্রে দোষণীয়




মূলভাব : শ্রেষ্ঠ জীব হিসেবে মানুষের ইচ্ছাশক্তি একটি অসাধারণ গুণ । যার মাধ্যমে মানুষ তার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন করতে পারে ।

সম্প্রসারিত ভাব : পৃথিবীতে বসবাস করতে গিয়ে মানুষ নানা বাধা - বিপত্তির সম্মুখীন হয় । জীবনে বেঁচে থাকার প্রতি পদে পদে মানুষকে বাধা - বিঘ্নের সাথে সংগ্রাম করে চলতে হয় । এজন্য মানুষ নানা ধরনের কাজ করে থাকে । কাজের সাফল্যের জন্য মানুষের ইচ্ছাশক্তির গুরুত্বই বেশি । কারণ মানবজীবন সংগ্রামে পরিপূর্ণ । এই সংগ্রাম করতে গিয়ে নিরাশ হলে চলবে না । নিরাশ হয়ে হাত - প গুটিয়ে বসে থাকলে চলবে না । তাকে অধিক উদ্দীপনা - উৎসাহ নিয়ে কর্মক্ষেত্রে নামতে হবে । সেই কঠিন কাজ করার প্রচণ্ড প্রকাশ ঘটাতে হবে । তাহলে দেখা যাবে সেই কাজের জন্য কোনো না কোনো উপায় পাওয়া যাবেই যাবে । ইচ্ছাশক্তি প্রবল যেকোনো কাজে সফলতা লাভ সুনিশ্চিত । পৃথিবীতে যারা জ্ঞান - বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে সুনাম - সুখ্যাতি অর্জন করেছেন তাদের কাজের ব্যক্তিজীবনে ইচ্ছাশক্তির প্রবল প্রকাশ পাওয়া যায় । দুর্দমনীয় ইচ্ছার কারণে নেপোলিয়ন বোনাপার্ট ইউরোপ জয় করতে স হয়েছিলেন , আব্রাহাম লিংকন প্রেসিডেন্ট হতে পেরেছিলেন এবং কলম্বাস আবিষ্কার করতে পেরেছিলেন আমেরিকা । ইচ্ছাশক্তির মানুষ কর্মজীবনে সাফল্য লাভ করে । শত বাধা - বিপত্তির সাথে সংগ্রাম করেই মানুষ নতুন নতুন রহস্যের দ্বার উদ্ঘাটনে সক্ষম হয় ।

মন্তব্য : ইচ্ছাশক্তির দ্বারা বিত্তের একাগ্রতা , ধৈর্য , সহনশীলতা ও অধ্যবসায়ের সৃষ্টি হয় । এতে সফলতা সহজ হয় । 

নিচে গিয়ে ভাবসম্প্রসারণ এর সম্পূর্ণ তালিকা দেখুন।

আপনাদের সুবিধার কথা চিন্তা করে এবং আপনাদের ইংরেজি ভাষা পড়া ও চর্চা করার জন্য আত্মশক্তি অর্জনই শিক্ষার উদ্দেশ্য ভাবসম্প্রসারণটি ইংরেজি ভাষাতে লেখা হয়েছে নিচে তা ইংরেজি অনুবাদ দেওয়া আছে। আপনি সেখান থেকে পড়তে এবং কপি করতে পারবেন, ধন্যবাদ। 




Next Post Previous Post
মন্তব্যগুলো দেখান
মন্তব্যগুলো যোগ করুণ

আপনার মূল মান মতামতটি আমাদের জানান। আমি শালীন ভাষা ব্যাবহার করবো এবং অশ্লীল ভাষা ব্যাবহার থেকে বিরত থাকবো। কৌণিক বার্তা.কম আপনার আইপি অ্যাড্রেস ব্লকের ক্ষমতা রাখে।

comment url