ভাবসম্প্রসারণঃ আলস্য এক ভয়ানক ব্যাধি

একতাই বল

আলস্য এক ভয়ানক ব্যাধি ভাবসম্প্রসারণ খুব সহজে  লিখতে ভালো নাম্বার নিতে পারবনে । আলস্য এক ভয়ানক ব্যাধি ভাবসম্প্রসারণ ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম, ৯ম, ১০ম শ্রেণী এবং SSC HSC JSC PSC বাংলা ২য় পত্রের ভাবসম্প্রসারণ।

ভাবসম্প্রসারণ আলস্য এক ভয়ানক ব্যাধি ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম, ৯ম, ১০ম ১১ ও ১২ শ্রেণীর জন্য কাযকারি ।

মূলভাব:

অলস ব্যাক্তি জীবনে কখনো উন্নতি করতে পারে না । জীবনে উন্নতি ও সাফল্যের মূলে রয়েছে পরিশ্রম। যে জাতি যত বেশি পরিশ্রমী ,সে জাতি তত বেশি উন্নত। মানবজীবনে একটি বাজে অভাস হলো আলস্য । মানব দেহে বিভিন্ন রোগ ব্যাধি যেমন মানুষকে পুঙ্গ করে দেই ঠিক তেমনই আলস্যও মানুষকে শ্রমবিমুখ করে ,ধীরে ধীরে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেই। 

সম্প্রসারিত ভাব:

হাসি-কান্ন ও সুখ-দুঃখের ন্যায় রোগ-ব্যাধিও মানুষের জীবনের একটা অংশ। কিছু রোগ-ব্যাধি সম্পর্ক মানুষকে সদা সর্তক থাকতে হয়। অলসতা আমাদের জীবনে এক মারাত্মক ব্যাধি। দেহ রোগ যেমন আমাদের জীবনকে পুঙ্গ করে দেই, তেমনি অলসতা আমাদেরকে শ্রম বিমুখ করে ধীরে ধীরে ধ্বংসেরন দিকে ঠেল দেয়। কারণ এসব ভয়ঙ্কর রোগ -ব্যাধি মানুষের কর্মক্ষমতা নষ্ট করে। মানুষকে ফেলে দেয় দুশ্চিন্তায়, আবার কখনো কখনো নিশ্চিত মৃত্যুর ‍দিকে ঠেলে দেয়। অলসতা এমনি এক ভয়ানক ব্যাধি । কারণ এটি ভয়ানক ব্যাধির ন্যায় মানুষের জীবনকে অচাল করে তোলে। সমাজে কিছু মানুষ আছে যারা অলস ও কর্মবিমুখ ।

এই অলস মানুষগুলো সমাজ ও নিজের উন্নয়নের জন্য কোনো ভূমিকাই পালন করে না । মানুষের জীবনে বেচে থাকার জন্য বহু জিনিসের প্রয়োজন । পরিশ্রম ব্যতীত ঐগুলো অর্জন করা যায় না। অলস মানুষ জীবনে কোনোদিনই উন্নতি লাভ করতে পারে না । অলস মানুষের জীবনে ব্যর্থতা নেমে আসে এবং পরিণামে সে দুঃখপুর্ণ জীবনযাপন করে । ব্যাধিগ্রস্ত মানুষের মতো দিন দিন সে পঙ্গু হয়ে পড়ে। ফলে সে অলস পঙ্গু মানুষ দেশ ও জাতির কোনো মঙ্গল সাধন করতেই পারে না বরং নিত্য আত্মীয়স্বজন ও পিতা-মাতা তিরস্কার ও গঞ্জনা তাকে সহ্য করতে হবে। কথায় আছে , অলস মস্তিস্ক শয়তানের লীলাভূমি । ব্যাধিগ্রস্ত ব্যাক্তি যেমন সমাজে রোগ বিস্তার করে সমাজকে ব্যাধিগ্রস্ত করে, তেমনি অলস লোকও নানা কুচিন্তা ও কুকাজ দ্বারা সমাজে নৈতিক অবক্ষয় ও অশান্তি ডেকে আনে। যে জাতি যতো বেশি পরিশ্রমী সে জাতি তত বেশি উন্নত। আলস্য বলতে শ্রমবিমুখতা বা কাজ করার ইচ্ছা না থাকাকে বোঝায়। আলস্য সব উদ্যমকে ধ্বংস করে , মানুষকে করে পুঙ্গ । কথায় বলে, আলস্য দোষের আকর। অলসতা মানুষের দেহ ও মনে জড়তা আনে । দেশ ও জাতির কোনো মঙ্গল সাধন তো তারা করতেই পারে না বরং তারা অক্ষম ও পুঙ্গ হয়ে পড়ে এবং দেশ ও জাতির বোঝা হয়ে এক দুঃখময় জীবনযাপন করে। কথায় আছে , অলস মস্তিস্ক শয়তানের আস্তানা ।

অলস ও অকর্মণ্য ব্যাক্তিরাই সমাজে সকল অনাচার ও কুকর্ম উদ্ভাবক । আলস্য এক কথা নয়। বিশ্রাম কাজেরই একটা অঙ্গ । শক্তি সঞ্চয়ের জন্য বিশ্রামের প্রয়োজন অপরিহার্য।

মন্তব্য:

আমাদের নিজেদের স্বার্থ আলস্য পরিহার করে কর্মঠ ও পরিশ্রমী হওয়ার চেষ্টা করতে হবে। তাহলে দেশ ও জাতির জন্য কল্যাণ সম্ভব। আমাদের  উচিত সবসময় অলসতা পরিহার করে কঠোর শ্রমের মাধ্যমে নিজেদেরকে দেশের যোগ্য হিসাবে গড়ে তোলা।


বিঃদ্রঃ বাংলাদেশর সকল শিক্ষা বিষয়ের খবর এবং বাংলা ২য় ও ইংরেজি ২য় এবং সকল বিষয়ের তথ্য জানতে চোখ রাখুন  কৌণিক বার্তা ফেসবুক পেজে নিচে লিংক দেওয়া হলোঃ-


ভাবসস্প্রসারণের সম্পূর্ণ তালিকা
Next Post Previous Post
মন্তব্যগুলো দেখান
মন্তব্যগুলো যোগ করুণ

আপনার মূল মান মতামতটি আমাদের জানান। আমি শালীন ভাষা ব্যাবহার করবো এবং অশ্লীল ভাষা ব্যাবহার থেকে বিরত থাকবো। কৌণিক বার্তা.কম আপনার আইপি অ্যাড্রেস ব্লকের ক্ষমতা রাখে।

comment url